Technology and Science
Technology and Science

Technology and Science

59 Members
3 years ago ·Translate

Bill Gates কে মেরে ফেলা একদম সহজ। নিজে খুনি না হয়েও একাজ করতে পারবেন।
কিভাবে?
তাকে একবার ঢাকার নীলক্ষেত মোড়ে নিয়ে আসুন। তার ভালবাসার windows XP মাত্র
৪০ টাকায়, windows 7 মাত্র ৮০ টাকায়
বিক্রি হতে দেখলে বেটা নিশ্চিত হৃদযন্ত্রের লীলাখেলা বন্ধ হয়ে মারা যাবে। এক ডলারেরও
কম মুল্য!! যেখানে real price তিনশো ডলার। অর্থাৎ প্রায় ২২০০০ টাকা বা তার উপরে। ভাবা যায়?
যদি এরপরও মারা না যায়, সেক্ষেত্রে ভার্সিটির
হলগুলোতে ঘুরিয়ে নিয়ে আসুন। অগনিত পিসিতে পাইকারি হারে পাইরেটেড OS , microsoft office বা visual studio ব্যবহার
করা দেখলে নিশ্চিত বেটা কষ্টে মারা যাবে। আমাদের দেশে অনেক অনিয়ম, অব্যবস্থাপনা আছে। সবই যে আমাদের জন্য খারাপ, তা কিন্তু না।
এই যেমন, পাইরেসি বা কপি রাইট আইন
না থাকার কারণে নীলক্ষেতের মোড়ে বিদেশী রাইটারদের লিখা academic বই বা গল্পের বই পানির দরে মিলছে। লাখ টাকার মেডিকেলের বই মিলছে ২০০ টাকায়।
এহেন কোন বই নেই যে নীলক্ষেতে পাওয়া যায় না। তাও আবার একেবারে কম মুল্য। আর গেমস বা মুভির ডিভিডি তো আছেই। সেই সাথে ইন্টারনেটেও কোন protection নেই। টরেন্ট দিয়ে পাইকারি হারে গিগা গিগা HD movie , serial সহ আরো কত কি ডাউনলোড করা হচ্ছে।
বুয়েটে ৪ বছর আগে যখন lan connection ছিল, তখন এহেন কোন জিনিস নাই, যা lan এ সার্চ দিলে পাওয়া যেত না। এমনও পিসি ছিল, যেগুলোতে ৪-৫ টেরাবাইট ফাইল শেয়ারে দেয়া থাকত। সে এক সোনালী সময়। আমার বন্ধু সৌরভ অনেকদিন আগে ঠাট্টা করে একটা কথা বলেছিল। জুলিয়ান আসাঞ্জ বা তারমত হ্যাকারদের উচিৎ এই দেশে আসা। এই দেশে বসে ইন্টারনেটে অকামকুকাম করা যত সহজ, দুনিয়ার আর কোথায় তার ছিটেফোঁটাও সম্ভব না।

3 years ago ·Translate

মোবাইলে ইন্টারনেট ব্রাউজ করার সময় আপনার পার্শ্ববর্তী নেটওয়ার্ক-এর উপর নির্ভর করে G, E, 3G, H, H+, LTE উঠে থাকে।
এগুলো সবই নেটওয়ার্ক-এর সংস্করণ।

G অর্থ GPRS
আপনার মোবাইল স্ক্রিনে যদি ‘G’ লেখা উঠে থাকে তবে আপনি ইন্টারনেটের সর্বনিম্ন কোয়ালিটি ইউজ করছেন।
অর্থাত এক্ষেত্রে আপনার নেট স্পিড থাকবে খুবই কম।

E অর্থ EDGE
যদি E লেখা থাকে তার মানে আপনি GPRS এর চেয়ে ভালো কোয়ালিটির ইন্টারনেট ব্যবহার করছেন।
এটিই মূলত 2G ইন্টারনেট।
বাংলাদেশের প্রায় সব এলাকাই EDGE কাভারেজ সম্পন্ন।

3G হল GSM এবং EDGE এর চেয়ে দ্রুত গতির ইন্টারনেট সংস্করণ।
3G = 3rd Generation
বাংলাদেশে 3G চালু হলেও মোবাইল অপারেটরগুলা এর চেয়ে উন্নত সংস্করণের ইন্টারনেট চালু করেছে।
যার কারণে 3G কাভারেজ এলাকায় নেট ব্রাউজ করলে মোবাইল স্ক্রিনে H অথবা H+ উঠে।
H = HSDPA / 3.5G
H+ = 3.9G

3G/3.G+ এর চেয়ে দ্রুত গতির ইন্টারনেট হল LTE বা 4G যা আমাদের দেশে বাণিজ্যিকভাবে এখনও চালু হয়নি।
LTE= Long Term Evolution

বাংলালায়নসহ অন্যান্য ওয়াইম্যাক্স কোম্পানিগুলো LTE চালু করতে চাচ্ছে কিন্তু নরমাল মোবাইল অপারেটর গুলোর কারনে তা সম্ভব হচ্ছেনা বলে জানা গেছে।

সারা বাংলাদেশে 3G পৌঁছার এবং LTE চালু হওয়ার আশায়…..