এই ছোট্ট গল্পটি আপনার জীবনের সব সমস্যা সমাধান নিয়ে আসবে

Posted in Tips & Tricks.

এই ছোট্ট গল্পটি আপনার জীবনের সব সমস্যা সমাধান নিয়ে আসবে


তুমি যদি এই মুহূর্তে কোন সমস্যা মধ্যে ঘিরে থাক তুমার যদি মনে হয় আমার সাথেই কেন এতো খারাপ হচ্ছে আমি তো সবার ভালো চাই তাহলে আমার জীবনে কেন সমস্যা এলো তাহলে আজকে এই ছোট্ট গল্পটা শোনার পর আশা করি তুমি তোমার প্রশ্নের উত্তর পেয়ে যাবে।এটা শোনার পর তোমার জীবনে আসা যেকোনো সমস্যা দেখার দৃষ্টি ভঙ্গি বদলে যাবে। তো চলো শুরু করা যাক

একটা লোক মন্দিরে এসে ভগবানকে রোজ বলে তুমি ভালো মানুষের সাথে কেন এতো অবিচার করো কেন এতো সৎ সাধারণ মানুষের জীবনে এতো সমস্যা আসে তোমার চোখের সামনেই তো সব ঘটনা ঘটে তাহলে তুমি কেন সঠিক বিচার করো না তোমার জায়গায় যদি আমি থাকতাম তাহলে কারো জীবনে এতো সমস্যা হতেই দিতাম না। রোজ এই শুনতে শুনতে ভগবান একদিন বলে ঠিক আছে একদিনের জন্য তুই আমার জায়গায় থাক আর আমি তোর জায়গায় থাকি। আমার জায়গায় একদিন থেকে দেক আমি সবার জন্য যেটা ঠিক সেটাই করি।

তবে একটা শর্ত আছে সারাদিন তোর সামনে যা ঘটবে তুই শুধু মূর্তি হয়ে দেখতে পারবি কিন্তু কিছু বলতে পারবিনা। সেই লোকটা শর্তে রাজি হয়ে গেল। এবার সে মূর্তি হওয়ার পরে প্রথমে একজন বিজনেসম্যান এলো সে পনাম করে বললো ধন্যবাদ ভগবান এবছর ব্যবসার আমার প্রচুর লাভ হয়েছে। তাই তোমাকে আমি ১০০১ টাকা পূজো দিয়ে গেলাম। সে যখন পনাম করে ওঠে চলে যায় লোকটা দেখতে পায় সে তার পয়সার ব্যাগটা ফেলে গেছে। সে ভাবে তাকে ডেকে বলেলে কিন্তু তার ভগবানের বলা কথা গুলো মনে পড়ে যায়। তাই সে চুপ করে থাকে।

এরপর সেখানে আরো একজন বক্ত আসে যে খুব গরিব সে সামান্য কিছু ফুল নিয়ে এসে ভগবানকে বলে আমার কাছে পূজো দেওয়া একটু ফুল আছে তুমি আমার উপর কৃপা কর।আমি অনেক টাকা পয়সা সমস্যা ভুগছি। ছেলের কলেজ ফি দিতে পারছিনা বলে কলেজ থেকে ছেলেকে বের করে দিবে। তুমি দয়া করে আমার জন্য কিছু করো। এই বলে সে যখন পনাম করে উঠল সে দেখতে পেল চোখের সামনে একটা পয়সার ব্যাগ পরে আছে সে ব্যাগটা পরে বললো ধন্যবাদ ভগবান তুমি আমার মনের কথা শুনেছো।

আমি এবার এ পয়সা দিয়ে আমার ছেলের কলেজর ফি দিতে পারব। মূর্তি রূপে দাড়িয়ে থাকা লোকটা ভাবলো এটা ঠিক নয়।আমি তো এটা করিনি এই লোকটা অন্য একজনেন পয়সা ব্যাগ নিয়ে চলে গেল। কিন্তু এবারও তার ভগবানের বলা কথাটা মনে পড়ে গেল কিছু বলা যাবেনা। তাই সে চুপ করে রইল। এরপর সেখানে আরেকজন ছেলে এলো সে এসে ভগবানকে পনাম করে বললো ভগবান আমি বিদেশে পড়াশোনা করতে যাচ্ছি একটু পড়েই আমার ফ্লাইট।


আর্শির বাদ করো যে আমার যাত্রা শুভ হয়। কিন্তু ইতি মধ্যে প্রথম যে বিজনেসম্যান যে তার পয়সার ব্যাগ ফেলে গিয়েছিল সে মন্দিরে পুলিশ নিয়ে হাজির হলো সে বললো আমি এখানেই একটু আগে আমার ব্যাগ ফেলে গিয়ে ছিলাম। আমার পরে নিশ্চয়ই এই ছেলেটাই এসেছে আর এই আমার ব্যাগ নিয়েছে একে এরেস্ট করে জিজ্ঞেসাবাদ করুন এবার সে মূর্তি হয়ে দাড়িয়ে থাকা লোকটা আর থাকতে পারলোনা সে বলেই দিল যে এই ছেলেটা এর ব্যাগ নেয়নি ব্যাগ নিয়েছে অন্য একজন।

একে ছেড়ে দিন সবাই দেখলো ভগবান যখন নিজে বলেছে তাহলে এটাই সত্যি তাই সে ছেলেটাকে তারা ছেড়ে দিয়ে আগের লোকটাকে খুঁজতে গেল। এবার পরের দিন যখন ভগবান নিজের জায়গায় ফিরে এলো লোকটা গর্বের সাথে ভগবানকে সব কথা বললো আর বললো দেখলে আমি একজন নিরপরাধ ছেলেকে বাঁচিয়ে দিলাম। তুমি তো আমাকে চুপ করে থাকতে বলেছিলে কিন্তু আমি চুপ করে থাকলে দোষ করতো একজন আর শাস্তি পেতো আরেক জন।

ভগবান বললো তুই ছেলেটাকে বাঁচালিনা এরং মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিলি। প্রথমে যে বিজনেসম্যানটা এসেছিল সে একটা প্যাইভেট কলেজর মালিক আর খুবি সার্থপর একজন মানুষ। কেউ পয়সা অভাবে ফি দিতে দেরি করলে তাকে কলেজ থেকে বের করে দিতে সে দুবার ভাবেনা এছাড়াও সে অনেক বাজে কাজ করেছে। আর দ্বিতীয় যে লোকটা এসেছিল তার ছেলে আগের লোকটার কলেজে পড়ে। আর এই লোকটা এতো সৎ যে সারা জীবন নিজের সবটুকু দিয়ে অন্যের সাহায্য করেছে।

প্রথম লোকটা টাকা দ্বিতীয় লোকটার কাছে গেলে প্রথম লোকটার খারাপ কর্মের রেফার একটু কমতো আর দ্বিতীয় লোকটার ছেলের ভবিষ্যৎ নষ্ট হতো না আর তার থেকেও বড় ব্যাপার যে ছেলেটা কালকে ফ্লাইটে করে বিদেশ গেছে তার ফ্লাইট ক্যাস করে গেছে। যদি পুলিশ ছেলেটাকে থানার নিয়ে যেতো জিজ্ঞেসাবাদে কিছু সময় নষ্ট হতো তাহলে সেই ফ্লাইটটা মিস করতো এবং সে বেঁচে যেতো এটা একটা কাল্পনিক ছোট্ট গল্প হলেও গল্পটা আমাদের সবার জীবনের সাথে কানেক্টেড।

আমাদের জীবনে যখন এমন সমস্যা আসে যার কারণ আমার হাজার ভেবে খুঁজে পাইনা তখন আমার উপরওয়ালাকে দোষ দিই। আমার ভাবি কেন আমার সাথেই এরকম হচ্ছে। কিন্তু কে বলতে পারে আজকের এই ছোট্ট সমস্যা হয়তো ভবিষ্যতে আসা কোন বড় সমস্যা হাত থেকে বাঁচানোর জন্য এসেছে।

স্টিভ জবসের একটা ফেমাস কথা আছে আমার কখনোই সামনে দিকে তাকিয়ে ডক কানেক্টে করতে পরবনা জীবনের ডক গুলো কানেক্ট করতে হলে অতীতের যেসব আমার সাথে ঘটেছিল সেগুলো কেন ঘটেছিল আর আমাদের বিশ্বাস রাখতে হবে যে আমাদের ভাবনা চিন্তার উপরেও অন্য আরেকজনের ভাবনা চিন্তা কাজ করছে।তাই আজ আমাদের জীবনের অল্প কিছু সমস্যা এলেও আমরা যদি নিজের কাজ ঠিক ভাবে করি তাহলে ভবিষ্যতে একদিন সব বাধা অবশ্যই দূর হয়ে যাবে।

Tags: ,
Nayan Ahmed Nir Articles

Recent

Recent Articles From: Nayan Ahmed Nir

Popular

Popular Articles From: Nayan Ahmed Nir